সোমবার   ১৯ এপ্রিল ২০২১ ||  বৈশাখ ৬ ১৪২৮ ||  ০৭ রমজান ১৪৪২

ACI Agri Business

১৯ সাংবাদিক পেলেন পোল্ট্রি মিডিয়া এওয়ার্ড ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ০৫:১৮, ২৩ মার্চ ২০২১

পোল্ট্রিখাতের রিপোর্টিং এর জন্য দেশের ১৯ সাংবাদিককে এওয়ার্ড দিলো বাংলাদেশ পোল্ট্রি ইন্ডাস্ট্রিজ সেন্ট্রাল কাউন্সিল। ‘পোল্ট্রি মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড-২০১৯’ -এর এবারের আয়োজনে সহযোগিতায় ছিল এসিআই এনিম্যাল হেল্থ। শনিবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে বিজয়ীদের হাতে এওয়ার্ড তুলে দেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।
 
জাতীয় ও স্থানীয় সংবাদপত্রের ৯ জন, টেলিভিশনের ৬ জন, অনলাইন ও ম্যাগাজিনের ৪ জনসহ মোট ১৯ সংবাদ প্রতিবেদককে বিজয়ী হিসেবে পুরস্কার প্রদান করা হয়। 

‘দৈনিক সংবাদপত্র’ ক্যাটাগরিতে প্রথম পুরস্কার পান দৈনিক ভোরের কাগজের সিনিয়র রিপোর্টার মরিয়ম সেঁজুতি; দ্বিতীয় হন দৈনিক দেশ রূপান্তরের স্টাফ রিপোর্টার আব্দুল্লাহ আল মামুন; এবং তৃতীয় হন দি নিউজ টুডে’র সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার মাজহারুল ইসলাম মিচেল।  

‘ঢাকার বাইরে থেকে প্রকাশিত সংবাদপত্রের প্রতিবেদন’ ক্যাটাগরিতে একমাত্র পুরস্কার লাভ করেন সাপ্তাহিক চৌদ্দগ্রাম এর নির্বাহী সম্পাদক এবং দৈনিক ফেনীর সময় এর চৌদ্দগ্রাম প্রতিনিধি মোঃ এমদাদ উল্যাহ। 

‘টিভি ও রেডিও’ ক্যাটাগরিতে প্রথম পুরস্কার লাভ করেন- যমুনা টেলিভিশনের স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট সুশান্ত সিনহা। দ্বিতীয় হন চ্যানেল-২৪ এর কৃষি বিষয়ক প্রতিবেদক ফয়জুল সিদ্দিকী এবং তৃতীয় হন মোহনা টিভি’র স্টাফ রিপোর্টার তানজিলা নিঝুম।

বার্তা-সংস্থা/অন-লাইন ক্যাটাগরিতে একমাত্র পুরস্কার পান পরিবর্তন ডটকম এর স্টাফ রিপোর্টার, বর্তমানে বৈশাখী টেলিভিশনের স্টাফ রিপোর্টার মোঃ তাসলিমুল আলম তৌহিদ। ‘পোল্ট্রি ও কৃষি বিষয়ক ম্যাগাজিন/অনলাইন’ ক্যাটাগরিতে একমাত্র পুরস্কার লাভ করেন এগ্রিনিউজ২৪.কম এর সম্পাদক মো. খোরশেদ আলম (জুয়েল)।

এছাড়াও ‘প্রমিজিং পোল্ট্রি রিপোর্টার্স অ্যাওয়ার্ড’ লাভ করেন- এনটিভি’র সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট মাকসুদুল হাসান; জাগোনিউজ২৪.কম এর বিশেষ সংবাদদাতা মনিরুজ্জামান উজ্জল; দৈনিক যুগান্তরের সিনিয়র রিপোর্টার মোঃ মিজানুর রহমান চৌধুরী; দৈনিক ইত্তেফাক এর সিনিয়র রিপোর্টার মোঃ নিজামুল হক,  দৈনিক জনকন্ঠের স্টাফ রিপোর্টার রহিম শেখ; দৈনিক ইত্তেফাকের স্টাফ রিপোর্টার মুন্না রায়হান; সময় টেলিভিশনের স্টাফ রিপোর্টার কাজল আব্দুল্লাহ; ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনের ব্রডকাস্ট জার্নালিস্ট শাহীদ আহমেদ; দৈনিক সুপ্রভাত বাংলাদেশের চীফ রিপোর্টার ভ‚ঁইয়া নজরুল; এবং এগ্রিকেয়ার২৪.কম এর সিনিয়র রিপোর্টার মোঃ আবু খালিদ। 

প্রথম পুরস্কার বিজয়ীদের প্রাইজমানি হিসেবে ৫০ হাজার টাকা, দ্বিতীয় বিজয়ীদের ৪০ হাজার টাকা এবং তৃতীয় পুরস্কার বিজয়ীদের ৩০ হাজার টাকার চেক প্রদান করা হয়। তাছাড়া ঢাকার বাইরের দৈনিকে প্রকাশিত সংবাদ, সংবাদ সংস্থা/অনলাইন এবং পোল্ট্রি ও কৃষি ম্যাগাজিন/অনলাইনের পুরস্কার বিজয়ীদের প্রত্যেককে ৩০ হাজার টাকার প্রাইজমানি এবং প্রত্যেক বিজয়ীকে ক্রেস্ট ও সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়। ‘প্রমিজিং পোল্ট্রি রিপোর্টার্স অ্যাওয়ার্ড’ বিজয়ীদের প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকার প্রাইজমানি ও সনদ প্রদান করা হয়।

বিশেষ অতিথি ছিলেন মন্ত্রণালয়ের সচিব রওনক মাহমুদ এবং সম্মাননীয় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডাঃ আব্দুল জব্বার শিকদার; মৎস্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডাঃ কাজী শামস আফরোজ; এবং  বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. মোঃ আব্দুল জলিল। জুরি বোর্ডের সদস্য হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক প্রথম আলোর সহযোগী সম্পাদক, আব্দুল কাইয়ুম মুকুল;  টিভি টুডে’র এডিটর ইন চীফ মনজুরুল আহসান বুলবুল; দৈনিক যুগান্তর সম্পাদক সাইফুল আলম, দৈনিক ভোরের কাগজ সম্পাদক শ্যামল দত্ত এবং যমুনা টিভি’র বিজনেস এডিটর সাজ্জাদ আলম খান তপু।  

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী এবং স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর কথা স্মরণ করে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী  শ ম রেজাউল করিম, এম পি বলেন, দেশ অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে চলেছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশের কাতারে অচিরেই যুক্ত হতে যাচ্ছে। মাথাপিছু আয় বেড়েছে, কোভিড মহামারি সত্তে¡ও বেড়েছে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ। মন্ত্রী বলেন, ২০৪১ সাল নাগাদ উন্নত দেশ গড়তে হলে আমাদের দরকার স্বাস্থ্যবান ও মেধাবি জাতি। তাই সবার জন্য পুষ্টি নিশ্চিত করতে হবে, বাড়াতে হবে ডিম, দুধ, মাছ, মাংসের কনজাম্পশন। 

পুরস্কার বিজয়ীদের অভিনন্দন জানান বিপিআইসিসি’র সভাপতি মসিউর রহমান। তিনি বলেন, বিগত কয়েক বছরে পোল্ট্রি বিষয় নিয়ে বেশকিছু ইন-ডেপথ রিপোর্ট সকলের নজর কড়েছে। সংবাদপত্র এমনকি টেলিভিশনেও সিরিজ রিপোর্ট প্রকাশিত হচ্ছে। মসিউর বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে আন্তর্জাতিক বাজারে ফিড তৈরি কাঁচামালের দাম ৩০-৪০ শতাংশ বেড়েছে, ফ্রেইট খরচ দ্বিগুণ হয়েছে, বিগত প্রায় একবছর ব্রয়লার খামার ও ব্রিডার ফার্মগুলোকে উৎপাদন খরচের চেয়েও কম দামে মুরগি ও বাচ্চা বিক্রি করেছে। কোভিডের ধকল কাটিয়ে উঠতে কয়েক বছর সময় লাগবে বলে মনে করেন মসিউর। তিনি জানান, দেশীয় চাহিদা মিটিয়ে রপ্তানীর জন্যও তাঁরা প্রস্তুতি নিচ্ছেন। তাই দরকার দীর্ঘমেয়াদি কর কাঠামো এবং ২০৩০ সাল পর্যন্ত পোল্ট্রিখাতের জন্য কর অব্যাহতি সুবিধা।

Advertisement
Advertisement