সোমবার   ০১ জুন ২০২০ ||  জ্যৈষ্ঠ ১৭ ১৪২৭ ||  ০৯ শাওয়াল ১৪৪১

সরকারি ধান সংগ্রহ

স্লিপ বিক্রি করলে কার্ড বাতিল কৃষকের, শাস্তি পাবেন মধ্যসত্ত্বভোগী

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ০২:৪২, ১৯ মে ২০২০

মধ্যসত্ত্বভোগীদের কাছে ধান বিক্রির স্লিপি বিক্রি করলে ওই কৃষকের কার্ড বাতিল এবং মধ্যসত্ত্বভোগীকে আইনের আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধণ চন্দ্র মজুমদার। সোমবার মিন্টো রোডের সরকারি বাসভবন থেকে খুলনা বিভাগের সাথে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে এ নির্দেশনা দেন খাদ্যমন্ত্রী । 

এছাড়া ধান সংগ্রহে লটারিতে নির্বাচিত কৃষকের নামের তালিকা ইউনিয়ন তথ্য কেন্দ্রে এবং সরকারী খাদ্য গুদামে টানিয়ে রাখার নির্দেশ দিয়ে খাদ্যমন্ত্রী বলেছেন, প্রকৃত কৃষকদের লটারির মাধ্যমে নির্বাচন করে তাদের কাছ থেকেই ধান কেনা হবে। বাইরের কারো কাছ থেকে ধান কেনা যাবে না বলেও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সতর্ক করে দেন মন্ত্রী। কোন কৃষক যেন খাদ্যগুদামে ধান দিতে এসে ফেরত না যায় এবং কোনভাবেই যেন কৃষক হয়রানি না হয় সেদিকেও নজর রাখার নির্দেশ দেন তিনি।

এবার বোরো মৌসুমে ৮ লাখ মেট্রিক টন ধান সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে কিনবে সরকার। 

চাল সংগ্রহের ক্ষেত্রে কঠোরতা অবলম্বন করার নির্দেশ দিয়ে খাদ্য সচিব ড. মোছাম্মৎ নাজমানারা খানুম বলেন, কোনোভাবেই পুরান চাল নেয়া যাবেনা; চাল সংগ্রহের ক্ষেত্রে নিশ্চিত করতে হবে যে সংগ্রহকৃত চাল এবারের বোরো ধানের চাল এবং পাশাপাশি বস্তার গায়ে স্টেনসিল ব্যবহার করতে হবে ।  

ভিডিও কনফারেন্সে খুলনা বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার, খুলনা আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রক, কুষ্টিয়া, বাগেরহাট, চুয়াডাঙ্গা, যশোর, মাগুরা, ঝিনাইদহ, মেহেরপুর ও সাতক্ষীরা জেলার জেলা প্রশাসকগণ, খুলনা বিভাগের আওতাধীন প্রতিটি জেলার জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রকগণ বক্তব্য রাখেন।