সোমবার   ২৫ অক্টোবর ২০২১ ||  কার্তিক ১০ ১৪২৮ ||  ১৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

ACI Agri Business

ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু; দেশীয় পেঁয়াজে ধস

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২৩:৪২, ৩ জানুয়ারি ২০২১

শনিবার বিকেলে ভারত থেকে ১৯টন পেঁয়াজ বোঝাই একটি ট্রাক দেশে প্রবেশের মধ্য দিয়ে দীর্ঘ সাড়ে তিন মাস পর বন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। আমদানিকৃত এসব পেঁয়াজ বন্দর থেকে খালাস হয়ে দেশের বাজারে সরবরাহ করা হয়েছে। এদিকে ভারতীয় পেঁয়াজ আসায় দেশীয় পেঁয়াজের দামে ধস নেমেছে, একদিনের ব্যবধানে কেজিতে দাম কমেছে ৩ থেকে ৪ টাকা। 

নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেওয়ায় দীর্ঘ সাড়ে তিন মাস বন্ধের পর শনিবার (২ জানুয়ারি) পুনরায় ভারত থেকে আমদানি শুরু হয়।

রবিবার (৩ জানুয়ারি) বিকেল ৫টা পর্যন্ত বন্দর দিয়ে ভারত থেকে আর কোনো পেঁয়াজ দেশে প্রবেশ করেনি। তবে আগামীকাল বন্দর দিয়ে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি হতে পারে বলে বন্দরের আমদানিকারকরা জানিয়েছে। 

অভ্যন্তরীণ বাজারে পেঁয়াজের সংকট ও মুল্যবৃদ্ধির অজুহাত দেখিয়ে গত ১৪ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশে পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে দেয় ভারত। এতে করে দেশে প্রবেশের অপেক্ষায় ভারতের অভ্যন্তরে আটকা পড়ে ২৫০ পেঁয়াজবাহী ট্রাক। আরও আটকা পড়ে আমদানির জন্য খোলা ১০ হাজার টনের মতো এলসি করা পেঁয়াজ। এর পাঁচদিন পর ১৯ সেপ্টেম্বর অনুমতি স্বাপেক্ষে পুর্বের টেন্ডারকৃত ১১টি ট্রাকে ২৪৬টন পেঁয়াজ রফতানি করে যার অধিকাংশ পেঁয়াজ পঁচা নষ্ট হওয়ায় পুঁজি হারিয়ে ব্যাপকভাবে আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েন বন্দরের আমদানিকারকরা।

এর পর থেকেই পেঁয়াজ আমদানির জন্য খোলা এলসিগুলোর বিপরীতে পেঁয়াজ রফতানি করতে ব্যবসায়ীরা ভারতীয় ব্যবসায়ীদের চাপ প্রয়োগ করে আসছিল। এর ফলে দেশের বাজারে পেঁয়াজের দাম বেড়ে যায়। পরিস্থিতি সামাল দিতে আমদানিকারকেরা মিয়ানমার, পাকিস্তান, মিশর, তুরস্ক ও চীন থেকে বিপুল পরিমাণে পেঁয়াজ আমদানি করে।

Advertisement
Advertisement