মঙ্গলবার   ২০ অক্টোবর ২০২০ ||  কার্তিক ৫ ১৪২৭ ||  ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

ACI Agri Business

বাকৃবিতে চালু হচ্ছে বায়োইনফরমেটিক্স ডিগ্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২৩:০৯, ২০ আগস্ট ২০২০

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে চালু হচ্ছে বিএসসি ইন বায়োইনফরমেটিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং (BSc in Bioinformatics Engineering) নামে নতুন একটি স্নাতক ডিগ্রী। সম্প্রতি ইউজিসি থেকে অনুমোদন পাওয়া এই ডিগ্রীটি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদ থেকে প্রদান করা হবে।

জৈব তথ্যবিজ্ঞান তথা বায়োইনফরমেটিক্স (Bioinformatics, computational biology) এমন একটি কৌশল যেখানে ফলিত গণিত, তথ্যবিজ্ঞান, পরিসংখ্যান, কম্পিউটার বিজ্ঞান, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, রসায়ন এবং জৈব রসায়ন ব্যবহার করে জীববিজ্ঞানের সমস্যাসমূহ সমাধান করা হয়। মূলত জীববিজ্ঞানের আণবিক পর্যায়ে গবেষণাই এখানে অন্তর্ভুক্ত হয়। জীবতথ্যবিজ্ঞানের জগতে গবেষণার বিষয়বস্তুগুলোর মধ্যে রয়েছে সিকুয়েন্স অ্যালাইনমেন্ট, জিন অনুসন্ধান, জিনোম সমন্বয়, প্রোটিনের গাঠনিক অ্যালাইনমেন্ট, প্রোচিন গঠন ভবিষ্যদ্বাণী, জিন বহিঃপ্রকাশ সম্বন্ধে ভবিষ্যদ্বাণী, প্রোটিন-প্রোটিন মিথস্ক্রিয়া এবং বিবর্তনের নকশা প্রণয়ন। জীব সংক্রান্ত তথ্য ব্যবস্থাপনার কাজে কম্পিউটার প্রযুক্তির প্রয়োগই হলো বায়োইনফরমেটিক্স।

Bio (জৈব) + informatics (তথ্য প্রযুক্তি); যা বাংলা করলে Bioinformatics এর অর্থ দাড়ায় জৈব তথ্য প্রযুক্তি। জীব বিজ্ঞানের জ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে পাওয়া জেনেটিক কোডের মত জটিল তথ্যকে বিশ্লেষন করার কাজ করে Bioinformatics । কম্পিউটার বিজ্ঞান (Computer Science), পরিসংখ্যান (Statistics), গণিত (Math) সহ ইঞ্জিনিয়ারিং তথা প্রকৌশল বিদ্যাকে কাজে লাগিয়ে জটিল কিছু প্রক্রিয়ার মাধ্যমে এমন কিছু সফটওয়্যার প্রস্তুত করা হয় যার সাহায্যে খুব সহজেই জীববিজ্ঞান সংক্রান্ত ডাটাগুলো বিষদ আকারে বিশ্লেষণ করা যায়। এই সবগুলো বিষয়ের সংমিশ্রণেই হচ্ছে বায়োইনফরমেটিক্স।

বাংলাদেশে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের Genetic Engineering/Biotechnology সম্পর্কিত ডিগ্রিগুলোতে বায়োইনফরমেটিক্স এর বিভিন্ন কোর্স পড়ানো হয়। কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম B.Sc. in Bioinformatics Engineering চালুর মাধ্যমে কৃষি শিক্ষা ও গবেষণার ক্ষেত্রে এক নতুন দ্বার উন্মোচিত হবে বলে আশা করা হচ্ছে।  
 

Advertisement
Advertisement