শুক্রবার   ০৭ আগস্ট ২০২০ ||  শ্রাবণ ২২ ১৪২৭ ||  ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

ACI Agri Business

নেপালেও হানা দিয়েছে পঙ্গপাল!

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৩:২৪, ২ জুলাই ২০২০

প্রায় দুই দশকেরও বেশি সময় পর শনিবার নেপালের ফসলের জমিতে এক নতুন ধরনের পতঙ্গ দেখা যায়, যা ফসলের এবং খাদ্য সুরক্ষাকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে বলে ধারনা করছেন বিশেষজ্ঞরা। 
 
সরকারী কর্মকর্তারা পরে নিশ্চিত করে যে আক্রমণকারী প্রজাতিটি মরুভূমি পঙ্গপাল যা ঝাঁকে ঝাঁকে নেপালে প্রবেশ করছে।পঙ্গপালের ঝাঁক ইতোমধ্যে নেপালের সিন্ধুলি, বড়, পারসা, সরলাহী ও রূপদেহে দেখা গেছে।

শনিবার সকালে সিন্ধুলির সন্তোষ বুধঠোকি নামের এক কৃষক যখন তার ফসলের জমিতে প্রবেশ করে  তখন সে কিছু অদ্ভুত পতঙ্গ চারপাশে উড়তে দেখে, আস্তে আস্তে এর সংখ্যা বাড়তে শুরু করে এবং হাজারে হাজারে দেখা দেয়। বুধঠোকির মতে, এটি পঙ্গপাল যা ফসলের ব্যাপক ক্ষতি করে।সে আরও বলে,"আমরা অত্যন্ত উদ্বিগ্ন,আমরা কীভাবে এই পোকা থেকে মুক্তি পেতে পারি তা জানি না।"  

জলবায়ু পরিবর্তন বিশেষজ্ঞ মধুকর উপাধ্যায় বলেছেন, পঙ্গপালের ছোট্ট দল সম্ভবত প্রজননের উদ্দেশ্যে নেপালে প্রবেশ করেছে।এটি দেশের খাদ্য সুরক্ষাকে ব্যাপকভাবে প্রভাবিত করবে সেই সাথে পরবর্তী মৌসুমের জন্য হুমকি হতে পারে, যার জন্য নেপাল এখনও প্রস্তুত নয় বলে মনে করেন তিনি।

ভারতের বিহার রাজ্য থেকে নেপালে যে কীটপতঙ্গ প্রবেশ করেছে সে বিষয়ে এখনো নিশ্চিত হতে পারেনি সরকারী কর্মকর্তারা। তবে শনিবার, ভারতের হরিয়ানার গুরুগ্রাম এলাকায়ও দুই কিলোমিটার জুড়ে ছড়িয়ে থাকা পঙ্গপালের ঝাঁক দেখা গেছে।

কয়েক দশকের মধ্যে ভারতে সবচেয়ে বেশি পঙ্গপালের আক্রমণ দেখা দিয়েছে, তবে নেপালে এখনো এর তেমন প্রভাব পরেনি।বিশেষজ্ঞদের মতে, যদি ভারতের মত নেপালেও ঝাঁকে ঝাঁকে পঙ্গপাল হানা দেয় তবে তাদের নিয়ন্ত্রণ করা অনেক কঠিন হবে।
 
এর আগে ১৯৬২ সালে নেপালে এমন পতঙ্গ দেখা যায়, যা কাঠমুন্ডু, নুওয়াকোট, ধাডিং এবং আরও কয়েকটি জেলায় ফসলের উপর হামলা চালায় এবং এতে ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছিল।
 

Advertisement
Advertisement