সোমবার   ০১ জুন ২০২০ ||  জ্যৈষ্ঠ ১৭ ১৪২৭ ||  ০৯ শাওয়াল ১৪৪১

তামাক পাতা থেকে করোনার ভ্যাকসিন; মানুষের উপর ট্রায়ালে প্রস্তুত

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ০০:১১, ১৯ মে ২০২০

করোনা মহামারিতে এখন বিপর্যস্ত গোটা বিশ্ব। এই  মহামারির প্রতিষেধক আবিষ্কারে বিশ্বজুড়ে অন্তত ১শ’ ভ্যাকসিন নিয়ে চলছে গবেষণা, অন্তত ছয়টি ভ্যাকসিন গবেষণায় এগিয়ে রয়েছে। তবে ঠিক কোন ভ্যাকসিনটি কার্যকর হবে তা এখনই নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। প্রতিদিন মৃত্যু, নতুন নতুন আক্রান্ত আর ওষুধ বিহীন এ মহামারি মোকাবেলায় সবকিছুই যখন অনিশ্চিত তখন অনেকটা চমকে যাওয়ার মত ভ্যাকসিনের খবর দিলো সিগারেট প্রস্তুতকারী ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো । 

রোববার ভারতীয় দৈনিক ডেকান হেরাল্ডে এ খবর জানানো হয়। খবরটিতে বলা হয়, ভ্যাকসিনটি এখন মানুষের উপর ট্রায়ালের জন্য প্রস্তুত। 

স্বাস্থ্যঝুঁকি এমন কী মৃত্যুর কারণ হয়ে উঠে যে তামাক পাতা, সেই পাতার প্রোটিন ব্যবহার করে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন তৈরির ঘোষণা দিয়ে গত এপ্রিলেই সবাইকে চমকে দিয়েছিলো বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহৎ সিগারেট উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানটি। 

তামাক পাতা ব্যবহার করে উদ্ভাবিত এই ভ্যাকসিনটি  অ্যান্টি-ভাইরাল হিসাবে কাজ করবে এবং শরীরকে ইমিউনিটির জন্য প্রস্তুত করবে বলে জানিয়েছেন সংস্থাটির চিফ মার্কেটিং অফিসার কিংসলে হুইটন। তাঁর দাবি, প্রাক- ক্লিনিক্যাল পরিক্ষায় এটি অভাবনীয় সাফল্য অর্জন করেছে। ভ্যাকসিনটি  মুনাফার ভিত্তিতে নয় বরং মানুষের সেবার লক্ষে প্রস্তুত করা হচ্ছে হুইটন । 

লন্ডন ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান বিএটি কর্তৃপক্ষ গত শুক্রবারই জানিয়েছেন, ভ্যাকসিনটির প্রাথমিক ফলাফল মার্কিন খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন (এফডিএ)’র কাছে জমা দিয়েছেন তারা। অনুমোদন পেলে তা ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল বা মানুষের উপর পরীক্ষা চালানো শুরু হবে। 

ভ্যাকসিন তৈরির ইউনিট কেনটাকি বায়োপ্রসেসিং (কেবিপি) এর মতে, সরকারী সংস্থা এবং সঠিক নির্মাতাদের সহায়তা পেলে প্রতি সপ্তাহে এক থেকে তিন মিলিয়ন ডোজ উৎপাদন করতে পারবে প্রতিষ্ঠানটি ।

এক বিবৃতিতে, বিএটির বৈজ্ঞানিক গবেষণার পরিচালক ডেভিড ও'রেলি বলেছেন, "আমরা বিশ্বাস করি যে আমরা আমাদের তামাকের উদ্ভিদ প্রযুক্তি প্ল্যাটফর্মের সাথে একটি গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি অর্জন করেছি এবং কোভিড -১৯ এর বিরুদ্ধে যুদ্ধে বিজয়ী হতে সরকার এবং সমস্ত অংশীদারদের সাথে কাজ করার জন্য প্রস্তুত রয়েছি।"