বৃহস্পতিবার   ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||  আশ্বিন ১ ১৪২৮ ||  ০৮ সফর ১৪৪৩

ACI Agri Business

জোয়ারের পানিতে ভেসে গেছে মাছের ঘের; তলিয়ে গেছে ফসলের জমি

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৬:০৪, ৩১ মে ২০২১

ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে উপকূলীয় জেলাগুলোতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বরগুনা ও বাগেরহাটে  অস্বাভাবিক জোয়ারের পানিতে ভেসে গেছে মাছের ঘের ও জমির ফসল। পানি নামতে শুরু করলেও ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় দেখা দিয়েছে খাবার পানির তীব্র সংকট।

ঘূর্ণিঝড় ইয়াস ও পূর্ণিমার প্রভাবে বরগুনার  বিশখালী, বলেশ্বর ও পায়রা নদীর জোয়ারের পানি স্বাভাবিকের চেয়ে কয়েকফুট উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে। এতে জেলার ২২টি স্থানে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ভেঙে জোয়ারের পানি লোকালয়ে প্রবেশ করেছে। ভেসে গেছে  জমির ফসল, মাছের ঘের সেই সাথে পানিবন্দি হয়েছে মানুষ।

কৃষি বিভাগের তথ্যমতে ৭৭২ হেক্টর জমির আউশ বীজতলা ও ২৩১ হেক্টর জমির অন্যান্য ফসলের ক্ষতি হয়েছে। ভেসে গেছে কয়েক কোটি টাকার মাছ, সব হারিয়ে নিঃস্ব ক্ষতিগ্রস্তরা। এছাড়াও দেখা দিয়েছে বিশুদ্ধ পানির তীব্র সংকট।

এদিকে, বাগেরহাটের উপকূলীয় শরণখোলা, মোরেলগঞ্জ, মোংলা ও রামপাল উপজেলায় ভেসে গেছে অন্তত ৫ হাজার ঘেরের চিংড়ি ও মাছ। তলিয়ে গেছে আউষের বীজতলা ও সবজির ক্ষেত। ক্ষতিগ্রস্ত জেলার ৩৯টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার অন্তত ২৫ হাজার মানুষ।   

লোকালয়ে লোনাপানি প্রবেশ করায় মারা যাচ্ছে মিঠাপানির মাছ। এছাড়া সুন্দরবনের বিভিন্ন এলাকা থেকে চারটি মৃত এবং দুটি জীবিত হরিণ উদ্ধার করেছে বনবিভাগ।

সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন বলেন, আমাদের প্রায় ১৯টি জেটি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এছাড়া রাস্তাঘাট, দুটি ফুড ট্রেন এবং একটি টাওয়ারও ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা তৈরি করে সহায়তার আশ্বাস দিয়েছে জেলা প্রশাসক।দুর্যোগ মোকাবিলায় শিগগিরই টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণসহ কার্যকর পদক্ষেপ নেবে কর্তৃপক্ষ এমন প্রত্যাশা ক্ষতিগ্রস্থদের।   
 

Advertisement
Advertisement