শনিবার   ২৮ নভেম্বর ২০২০ ||  অগ্রাহায়ণ ১৩ ১৪২৭ ||  ১২ রবিউস সানি ১৪৪২

ACI Agri Business

চট্টগ্রাম মৎস্য বন্দরের কার্যক্রম ঢেলে সাজানোর আশ্বাস মন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২১:৩৭, ১ নভেম্বর ২০২০

দেশের উন্নয়নের স্বার্থে বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশনের আওতাধীন চট্টগ্রাম মৎস্য বন্দরের কার্যক্রম ঢেলে সাজানো হবে বলে জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এমপি।

রবিবার (০১ নভেম্বর) চট্টগ্রাম মৎস্য বন্দরের প্রশাসনিক ভবনে চট্টগ্রাম মৎস্য বন্দরের কার্যক্রম অবহিতকরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ কথা জানান। 

এসময় মন্ত্রী বলেন, "জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ, চিন্তা-চেতনা ও পরিকল্পনাকে ঘিরে চট্টগ্রাম মৎস্য বন্দর প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মৎস্য সেক্টরের উন্নয়নের জন্য সকল প্রকার সহযোগিতা করছেন। মৎস্য বন্দরের উন্নয়নে যা কিছু করা দরকার, সরকার সবকিছুই করবে। আমরা সবাইকে নিয়ে এগিয়ে যেতে চাই।" 

চট্টগ্রাম মৎস্য বন্দরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন "কর্ম সম্পাদনে সততা, নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার পরিচয় দিতে হবে। দায়িত্বে অবহেলা করা চলবে না। এ প্রতিষ্ঠানকে কিভাবে অর্থবহ করা যায়, সে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।"

এদিন সকালে চট্টগ্রামের পাহাড়তলীতে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের আওতাধীন আঞ্চলিক হাঁস-মুরগী খামার পরিদর্শন করে খামারের উৎপাদন বাড়ানোর নির্দেশনা দেন মন্ত্রী। 

বাংলাদেশ ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ের পোল্ট্রি রিসার্চ এন্ড ট্রেনিং সেন্টার (পিআরটিসি)-এ এনিমেল ডিজিজ ডায়াগনস্টিক ল্যাব এবং ফিড এনালাইসিস ও ফুড সেইফটি ল্যাব পরিদর্শন করেন তিনি। পরে একই বিশ্ববিদ্যালয়ের এনাটমি মিউজিয়াম পরিদর্শন করেন তিনি। একই দিন দুপুরে মেরিন ফিশারিজ একাডেমিতে নবনির্মিত অগ্রণী ব্যাংক ভবন উদ্বোধন করেন মন্ত্রী।

বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএফডিসি)-এর চেয়ারম্যান কাজী হাসান আহমেদের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ সচিব রওনক মাহমুদ। মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোঃ তৌফিকুল আরিফ, বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. ইয়াহিয়া মাহমুদ, বিএফডিসি'র পরিচালক রশিদ আহমদ, চট্টগ্রাম মৎস্য বন্দরের মহাব্যবস্থাপক কমান্ডার এম আর কে জাকারিয়াসহ চট্টগ্রাম মৎস্য বন্দরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।
 

Advertisement
Advertisement